উখিয়ায় বৌদ্ধ বিহারে আগুন

নিউজ ডেস্ক : কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার রত্নাপালং ইউনিয়নে গতকাল শনিবার রাতে আগুনে একটি বৌদ্ধ বিহার পুড়ে গেছে। উখিয়ার কোটবাজার বাসস্টেশনের পূর্ব পাশে ভালুকিয়া সড়কসংলগ্ন পূর্ব রত্না মৈত্রী বৌদ্ধ বিহারে এ ঘটনা ঘটে।

কিভাবে ওই বৌদ্ধ বিহারে আগুন লাগে তাত্ক্ষণিক তা জানা যায়নি। তবে ঘটনার সময় বিহারে বিদ্যুৎ ছিল না বলে নিশ্চিত করেছে বিহার পরিচালনা কমিটি। তাই বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুন লাগেনি বলে জানিয়েছে তারা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে, রাত ৮টার দিকে বিহারটিতে আগুন লাগে। এরপর আশপাশের লোকজন পানি নিয়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা করে। ততক্ষণে বিহারের সব কিছুই পুড়ে যায়।

রত্নাপালং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খাইরুল আলম চৌধুরী জানিয়েছেন, আগুন লাগার পর স্থানীয় লোকজন আগুন নেভাতে ছুটে আসে। পরে অবশ্য কক্সবাজার জেলা শহর থেকে ফায়ার সার্ভিসের গাড়িও ঘটনাস্থলে পৌঁছায়।

কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মো. আলী হোসেন ও পুলিশ সুপার এ কে এম ইকবাল হোসেনও রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

বিহারটির অধ্যক্ষ জ্যোতি মিত্র রাতে সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমি পাশের গ্রামে এক অনুষ্ঠানে নিমন্ত্রণে গিয়েছিলাম। বিহারের শ্রমণরাও গিয়েছিল অন্য একটি অনুষ্ঠানে। বিহারে আমাদের অনুপস্থিতিতেই আগুন লাগে। তাই কিসের আগুন বলা মুশকিল। ’

পূর্ব রত্না মৈত্রী বৌদ্ধ বিহার পরিচালনা কমিটির সভাপতি হেমন্দ্র বড়ুয়া ও সাধারণ সম্পাদক সুবধন বড়ুয়া রাতে কালের কণ্ঠকে জানান, বিহারটি কিসের আগুনে পুড়ে গেছে তা নিশ্চিত করে তাঁরা বলতে পারছেন না। তবে ওই সময় বিদ্যুৎ ছিল না।

প্রসঙ্গত, ২০১২ সালের ২৯ ও ৩০ সেপ্টেম্বর কক্সবাজারের রামু ও উখিয়ায় সাম্প্রদায়িক উসকানির ঘটনায় ১৯টি বৌদ্ধ বিহার আগুনে পুড়িয়ে দেওয়া হয়। গত রাতে যে বিহারটি আগুনে পুড়ে গেছে সেটি সেই সময় অক্ষত ছিল।

Print Friendly, PDF & Email
basic-bank

Be the first to comment on "উখিয়ায় বৌদ্ধ বিহারে আগুন"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*