জয় প্রসঙ্গে বিবিসিকে চ্যালেঞ্জ ছুড়লেন মতিয়া

নিউজ ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজিব ওয়াজেদ জয়ের সঙ্গে ইসরাইলের লিকুদ পার্টির নেতা মেন্দি এন সাফাদির বৈঠকের খবর বিবিসিকে প্রমাণ করার কথা বলে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষ্যে রাজধানীর ফার্মগেট খামারবাড়ি কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে ঢাকা মহানগর উত্তর কৃষক লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মঙ্গলবার বিকেলে তিনি এ চ্যালেঞ্জ করেন।

মতিয়া চৌধুরী বলেন, জয় তো চ্যালেঞ্জ দিছে, কবে কোথায় কখন? আমি এত বছর যাই নাই কোনখানে বৈঠক হইছে এইটার আর কোনো উত্তর পাই না। আমরা কিন্তু বিবিসিকে অনেক পছন্দ করি। মুক্তিযুদ্ধের সময় আর কিছু না হোক ওই রেডিওটা লাগাইয়া আমরা বিবিসি শুনতাম। সেই বিবিসি একেবারে কোনো রকম যাচাই-বাছাই ছাড়া এই ধরনের একটা খবর পরিবেশন করছে। এইটা কি বিবিসিরে মানায়?

এ সময় একটি কবিতার উদ্ধৃতি তুলে ধরে তিনি বলেন, আমি তোমাকে ভালোবাসতে চাই, তুমি ভালোবাসার যোগ্য হও। বিবিসিরে আমরা ভালোবাসতে চাই। তারা ভালোবাসার জায়গাটুকু রাখুক এইটাই চাই। আজকে আমরা চ্যালেঞ্জ দিছি। এই চ্যালেঞ্জ তাদের প্রমাণ করতে হবে।

সভায় ‘আমি বঙ্গবন্ধুর আওয়ামী লীগ করি এটা বলতে গর্ভবোধ করি’ সংবিধান প্রণেতা ড. কামাল হোসেনের এমন মন্তব্যের সমালোচনা করেন তিনি।

কৃষিমন্ত্রী বলেন, উনি ভুলে গেছেন যে উনি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ও সভাপতিত্বে আওয়ামী লীগ তাকে প্রেসিডেন্সিয়াল ক্যান্ডিডেট করেছিল। সে দিন শেখ হাসিনাকে উনি সভাপতি হিসেবেই মেনে নিয়েছিলেন। কামাল হোসেনকে ৭৫-এর ১৫ আগস্টের পর মোশতাক সরকারকে স্বীকৃতি না দিতে বিশ্ববাসীর প্রতি আহ্বান জানাতে বলেছিলেন শেখ হাসিনা। তখন ড. কামাল হোসেন বললেন, এটা আমার পক্ষে সম্ভব না। এই সত্য আমি কয়েকবার বলেছি, এই পর্যন্ত কামাল হোসেন কোনো প্রতিবাদ করতে পারেন নাই।

ঢাকা মহানগর উত্তর শাখার সভাপতি মাকসুদুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, দলটির কৃষিবিষয়ক সম্পাদক ড. আব্দুর রাজ্জাক, আন্তর্জাতিক-বিষয়ক সম্পাদক কর্নেল (অব.) ফারুক খান, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, কৃষক লীগ সভাপতি মোতাহার হোসেন মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খন্দকার শামসুল হক রেজা প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email
basic-bank

Be the first to comment on "জয় প্রসঙ্গে বিবিসিকে চ্যালেঞ্জ ছুড়লেন মতিয়া"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*