ট্যাটুতে শরীর ঢেকে ৬৭ বছরে গিনেস বুকে

নিউজ ডেস্ক : বয়স ৬৭ হলেও তার উদ্যমের কাছে হার মানবে হালের তরুণীরাও। পেশায় লেখিকা এবং ফিটনেস ট্রেনার শার্লট গুটেনবার্গের শরীরের ৯১.৫ ভাগই নানা রঙের ট্যাটুতে মোড়া। এজন্য গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডের খাতায় ‘মোস্ট ট্যাটুড ফিমেল সিনিয়র সিটিজেন’ খেতাবও পেয়েছেন তিনি।

আমেরিকার ফ্লোরিডার বাসিন্দা শার্লটের এই ট্যাটু উন্মাদনা শুরু হয়েছিল বহু বছর আগেই। তার পরে সময় যত এগিয়েছে, শিল্পের কাছে শরীর সঁপে দিয়েছেন মহিলা। তবে, শার্লট একাই নন! তার স্বামীটিও ট্যাটুর জন্য নজর কেড়েছেন বিশ্ববাসীর। প্রাক্তন ইউএস আর্মি-কর্মচারী চার্লস হেলমকে ট্যাটুর অনুপ্রেরণা পান ১৯৫৯ সালে। তার পরে স্ত্রীর মতো তার শরীরও স্বীকার করেছে ট্যাটুর সাজ। চার্লসের শরীরের ৯৩.৭৫ ভাগ ট্যাটুতে মোড়া। যার জন্য গিনেসের তরফে তিনি পেয়েছেন ‘মোস্ট ট্যাটুড মেল সিনিয়র সিটিজেন’-এর তকমা!

এখনও শেষ হয়নি শার্লটের ট্যাটুযাত্রা। শেষ ট্যাটুটি তিনি করিয়েছেন ২০০৬ সালে। তার পর থেকে চলছে পরিকল্পনা- পরের ট্যাটুর ডিজাইন কী হবে, শরীরের কোন অংশে ঠাঁই পাবে সেই ট্যাটু ইত্যাদি!

 

Print Friendly, PDF & Email
basic-bank

Be the first to comment on "ট্যাটুতে শরীর ঢেকে ৬৭ বছরে গিনেস বুকে"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*