প্রি-অ্যাক্টিভ সিমের বিরুদ্ধে অভিযান আগামী সপ্তাহে

নিজস্ব প্রতিবেদক : বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে মোবাইল সংযোগ পুনঃনিবন্ধনের পর এবার প্রি-অ্যাক্টিভ সিমের বিরুদ্ধে অভিযান চালানো হবে বলে জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম। প্রি-অ্যাক্টিভ সিম অথবা ভেরিফাইড না করা সিম বন্ধ না পাওয়া গেলে সংশ্লিষ্ট অপারেটরকে সিম প্রতি ৫০ মার্কিন ডলার করে জরিমানা করা হবে। টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী শুক্রবার (১০ জুন) ফেসবুকে নিজের ভেরিফাইড পাতায় এ তথ্য জানিয়েছেন। গত বছরের ১৬ ডিসেম্বর থেকে আনুষ্ঠানিক শুরুর পর ১১ কোটি ৬০ লাখ গ্রাহক তাদের সিম বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে পুনঃনিবন্ধন করেছেন। কিন্তু বিভিন্ন জায়গায় প্রি-অ্যাক্টিভ সিম বিক্রি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়ার পর অভিযানের ঘোষণা দিলেন প্রতিমন্ত্রী।
ফেসবুকে তিনি লিখেছেন, আগামী সপ্তাহ থেকেই আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর (পুলিশ-র‍্যাব) বিশেষ অভিযান পরিচালনার জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ জানানো হবে। কোথাও কোনো প্রকার প্রি-অ্যাক্টিভ সিম অথবা ভেরিফাইড না করা সিম বন্ধ না পাওয়া গেলে সংশ্লিষ্ট অপারেটরকে সিম প্রতি ৫০ ইউএস ডলার করে জরিমানা করা হবে। বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধনের পর অপরাধ কমে এসেছে বলেও জানান তারানা হালিম। তিনি লিখেন, আপনারা জেনে খুশি হবেন গুলশান থানাতেই মোবাইল ফোন ব্যবহার করে সংগঠিত অপরাধের অভিযোগ আগে যেখানে প্রতিদিন সর্বনিম্ন ২০টি করে আসতো সেখানে বায়োমেট্রিক্স পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধন সম্পন্ন করার পর গত ১ থেকে ৭ জুন একটি মাত্র অভিযোগ দায়ের হয়েছে, যা আসলেই আমাদের আনন্দিত করে।
“পাশাপাশি বিটিআরসির হিসাব মতে ১-৭ জুন অবৈধ ভিওআইপির পরিমাণ নজিরবিহীনভাবে কমে গেছে, যার ফলে সরকারের রাজস্ব আয়ও বৃদ্ধি পেয়েছে।”
কার নামে কোন অপারেটরের কতটি সিম পুনঃনিবন্ধিত হয়েছে তা ৭ জুলাই থেকে মোবাইল অপারেটরদের মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী।

Print Friendly, PDF & Email
basic-bank

Be the first to comment on "প্রি-অ্যাক্টিভ সিমের বিরুদ্ধে অভিযান আগামী সপ্তাহে"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*