ভোট দিন, উৎসব করুন : রিটার্নিং কর্মকর্তা

নিউজ ডেস্ক : নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা নুরুজ্জামান তালুকদার নারায়ণগঞ্জবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, ভোট দিন, উৎসব করুন। আমি শুরু থেকেই নগরবাসীকে বলেছি ভোটের দিন কোনো ঝামেলা হবে না।

উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট হবে। সেভাবেই ভোটগ্রহণ হচ্ছে। এখনও কোথাও কোনো অভিযোগ পাইনি। আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টায় নগরীর মাজদাইর আদর্শ স্কুল কেন্দ্র পরিদর্শন করতে এসে তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, মাঠে ৮৫ জন ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করছেন। আমি সবাইকে বলেছি কোনো অভিযোগ আসলে সেটা ৫/৬ মিনিটের মধ্যে তদন্ত করা হবে। বেলা ১২টার পর আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি শিথিল হবে কিনা- এমন এক প্রশ্নের জাবাবে তিনি বলেন, কারও মধ্যে শিথিলতা কাজ করবে না। নির্দেশ দেওয়া আছে ভোটগ্রহণ শেষে পরবর্তী ৪৮ ঘণ্টা একই ধরনের দায়িত্ব পালন করতে হবে। যাদের যে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে তারা সেই দায়িত্ব পালন করবে।
তিনি আরও বলে, এখনও কোনো অভিযোগ আসেনি। আগামীতেও কোনো অভিযোগ আসবে বলে মনে হয় না। যদি কেউ অভিযোগ দিতে চায় তাহলে লিখিত আকারে দিতে হবে। আর অফিযোগ পাওয়ার ৫/৬ মিনিটের মধ্যে সেটি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। রিটার্নিং কর্মকর্তা বলেন, ভোট নিয়ে ভোটারদের মধ্যে কোনো আশঙ্কা নেই। ভোটার উপস্থিতি কম কেন- এমন এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ভোটাররা কেন আসছেন না তা আমার জানা নেই। হয়ত অনেকে কাজ শেষ করে আসবেন। তবে আমি দৃঢ়তার সঙ্গে বলতে পারি ভোট নিয়ে কোনো আশঙ্কা নেই।

সকাল ৯টার দিকে নারায়ণগঞ্জ সরকারি মহিলা কলেজ কেন্দ্র পরিদর্শনে যান বিএনপির চেয়ারপারসর খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা তৈমূর আলম খন্দকার। এ সময় কর্তব্যরত সাংবাদিকরা বুথফেরত ভোটারদের কাছে পরিস্থিতি বিষয়ে জানতে চাইলে বিএনপির নেতাকর্মীরা পুলিশের কাছে অভিযোগ করে বলেন, সাংবাদিকরা ভোটারদের প্রভাবিত করছেন। অভিযোগ পেয়ে পুলিশ ওই কেন্দ্র থেকে সাংবাদিকদের বের করে দেন।

এ সময় সাংবাদিকরা তৈমূর আলম খন্দকারের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, নিজে নিজের দায়িত্ব পালন করুন। অতিরিক্ত কিছু করতে যাবেন না। এ সময় তিনি দলীয় নেতাদের মাথা ঠাণ্ডা রেখে কাজ করার নির্দেশ দেন। এদিকে, নারায়ণগঞ্জ ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হতে দেখা গেছে। বুথের সংখ্যা বেশি থাকায় সেখানে ভোটারদের কোনো লাইন লক্ষ করা যায়নি।

Print Friendly, PDF & Email
basic-bank

Be the first to comment on "ভোট দিন, উৎসব করুন : রিটার্নিং কর্মকর্তা"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*