‘মসুলে সুন্নি বাহিনী স্থানীয় পুরুষদের নির্যাতন করছে’

নিউজ ডেস্ক : প্রায় আড়াই বছর পর ইসলামিক স্টেট গোষ্ঠীর কাছ থেকে তাদের শক্ত ঘাঁটি মসুলের কিছু অংশের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নিয়েছে ইরাকি সরকারি বাহিনী।
এই যুদ্ধে ইরাকি নানা বাহিনীর প্রায় ৫০ হাজার যোদ্ধা অংশ নিচ্ছে।
যার মধ্যে ইরাকি সেনাবাহিনী, কুর্দি এবং সুন্নি বিভিন্ন গোষ্ঠীর মিলিশিয়ারা রয়েছে।
আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল বলছে, মসুলের দক্ষিণ-পূর্বের একটি গ্রাম যা আই-এস এর হাতছাড়া হয়েছে, সেখানে প্রতিহিংসামূলক কার্যকলাপে মেতে উঠেছে শক্তিশালী স্থানীয় গোত্রের সুন্নি মিলিশিয়া বাহিনী।
তাদের দখল করা এলাকায় আই-এস-এর সাথে সম্পৃক্তার সন্দেহে পুরুষ এবং কিশোরদের ওপর চলছে বিভিন্ন ধরনের নির্যাতন।
প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছে, সন্দেহভাজনদের ঐ সুন্নি মিলিশিয়ারা ভীষণ রকমভাবে মারছে, কাউকে বৈদ্যুতিক শক দিচ্ছে, অথবা গাড়ির সাথে বেধে রাস্তার ওপর দিয়ে টেনে হিঁচড়ে নিয়ে নির্যাতন করছে।
আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের বরাত দিয়ে এমনটাই বলছেন বিবিসির সংবাদদাতা সেবাস্চিয়ান আশার।
মসুলে ৩ থেকে ৫ হাজার পর্যন্ত আই এস যোদ্ধা রয়েছে বলে মনে করা হয়।
তাদের ছোঁড়া রকেট, গ্রেনেড ও মর্টারের তীব্র প্রতিরোধের মাঝেই বিশেষ বাহিনী মসুলের উপকণ্ঠে পৌছায়।

সূত্র : বিবিসি বাংলা

Print Friendly, PDF & Email
basic-bank

Be the first to comment on "‘মসুলে সুন্নি বাহিনী স্থানীয় পুরুষদের নির্যাতন করছে’"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*