মামলার জট কমাতে হবে: রাষ্ট্রপতি

নিউজ ডেস্ক : রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ মামলার জট কমাতে বিচার বিভাগ, আইনজীবী ও পুলিশ প্রশাসনকে সম্মিলিত প্রচেষ্টা চালানোর পরামর্শ দিয়ে সমাজে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় নিরলসভাবে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন। আজ এখানে জেলা আইনজীবীদের বার সমিতির ১২৫ বছর উদযাপন অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি বলেন, এটি অবশ্যই মনে রাখতে হবে যে আইন জনগণের জন্য। আইন প্রয়োগে ধনী ও দরিদ্রের সম-অধিকার নিশ্চিত করতে আইনজীবীরা ভূমিকা রাখতে পারে। সমাজ থেকে অসাম্য ও অবিচার দূর করতে আপনাদের ভূমিকা পালন করতে হবে। রাষ্ট্রাতি বলেন, বিচার ব্যবস্থায় আইনজীবীদের ভূমিকা অনস্বীকার্য এবং আইনজীবী পেশা এমন একটি পেশা যেখানে সমাজের কল্যাণের পাশাপাশি জীবিকা নির্বাহ নিশ্চিত করা সম্ভব।

আইনজীবী পেশাকে একটি মহৎ পেশা হিসেবে উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি অসহায় ও অস্বচ্ছল ব্যক্তিদের কাছ থেকে কোন ফি না নিয়ে অন্তত একটি মামলা পরিচালনার জন্য আইনজীবীদের প্রতি অনুরোধ জানান। রাষ্ট্রপতি বলেন, আমি আপনাদের প্রতি একটি অনুরোধ রাখতে চাই, প্রত্যেক আইনজীবী বছরে অন্তত একটি মামলা অসহায় দুস্থদের কাজ থেকে কোন ফি না নিয়ে পরিচালনা করবেন। আপনারা যদি এটি করেন তাহলে সমাজে পরিবর্তন আসবে এবং সাধারণ মানুষ আইনের প্রতি আরো শ্রদ্ধাশীল হবেন। রাষ্ট্রপতি নিজেও একজন আইনজীবী ছিলেন। বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক অবস্থা তুলে ধরে রাষ্ট্রপতি বলেন, অস্বচ্ছলতার কারণে বিপুলসংখ্যক মানুষ আইনের আশ্রয় নিতে পারে না।

তিনি বলেন, যারা অস্বচ্ছল, অসহায় ও বঞ্চিত সেই লোকদের দোরগোড়ায় আইনী সেবা পৌঁছে দিতে বর্তমান সরকার লিগ্যাল এইড সার্ভিসেস অ্যাক্ট-২০০০ অনুমোদন করেছে। সংসদে আইনজীবীদের অবদানের কথা তুলে ধরে রাষ্ট্রপতি বলেন, সংসদ আইন তৈরির কেন্দ্র এবং ১৯৭০ ও ১৯৭৩ সালের সংসদ সদস্যদের দুই-তৃতীয়াংশই ছিলেন আইনজীবী। তবে এই সদস্য সংখ্যা ধীরে ধীরে কমে এসেছে। রাষ্ট্রপতি বলেন, টাঙ্গাইল বার ১৮৮৭ সালে গঠিত হয় এটি দেশের অন্যতম প্রাচীন বার। এই বারটি জনগণের জন্য সুবিচার নিশ্চিত করতে এবং আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে।

পাশাপাশি এই বারের বিজ্ঞ আইনজীবীরা ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলন, মহান ভাষা আন্দোলন ও স্বাধীনতা যুদ্ধসহ সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনে অত্যন্ত সক্রিয় ভূমিকা পালন করেছে। বার সভাপতি এডভোকেট মুলতান উদ্দিনের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে অর্থ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ড. আবদুর রাজ্জাক, টাঙ্গাইল জেলা পরিষদের প্রশাসক ফজলুর রহমান খান ফারুক, এডভোকেট জহিরুল ইসলাম ও এডভোকেট মোহসিন সিকদার অন্যান্যের মধ্যে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন। এর আগে রাষ্ট্রপতি টাঙ্গাইল জেলা আইনজীবীদের বার সমিতির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

Print Friendly, PDF & Email
basic-bank

Be the first to comment on "মামলার জট কমাতে হবে: রাষ্ট্রপতি"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*