লোহাগড়ায় ভূমি অফিসের রেজিষ্টার খাতা উদ্ধার

লোহাগড়ায় ভূমি অফিসের রেজিষ্টার খাতা উদ্ধার

নিউজ ডেস্ক ॥ নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলা ভূমি অফিসের হারিয়ে যাওয়া ৫টি নামজারী মামলার রেজিষ্টার খাতা রোববার (৪ ফেব্রুয়ারী) উদ্ধার করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, পৌর এলাকার গোপীনাথপুর গ্রামের মৃত আলী শেখ’র ছেলে ভ্যান চালক জামাল শেখ’র বাড়ি থেকে রোববার বিকালে ৫টি রেজিস্টার খাতা উদ্ধার করা হয়েছে। জামাল শেখ’র মা আছিয়া বেগম বলেন, ভ্যান চালানোর সময় তার ছেলে রাস্তার ওপর পড়ে থাকা রেজিস্টার ভর্তি ব্যাগ দেখে কুড়িয়ে বাড়িতে এনে আমাদেরকে জানায়। আমরা এলাকায় মাইকিং করার অপেক্ষা করতে থাকি। এলাকায় কোন মাইকিং না হওয়ায় একই গ্রামের মৃত বাবু মুন্সির ছেলে নাজমুল (নাজুম) মুন্সির নিকট রাস্তায় কুড়িয়ে পাওয়া রেজিস্টার ভর্তি ব্যাগের বিষয়টি অবহিত করি। নাজুম মুন্সি লক্ষীপাশা চৌরাস্তায় ফোনের ফ্লেক্্িরলোডের ব্যাবসা করার সুবাদে লোকজনের কাছে বিষয়টি জানায়। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মনিরা পারভীন ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) এমএম আরাফাত হোসেন দ্রুত ঘটনা স্থলে পৌছে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ রেজিস্টার খাতা গুলি উদ্ধার করেন।

উল্লেখ্য গত ২৩ জানুয়ারী লোহাগড়া উপজেলা ভূমি অফিসের নামজারী মামলার গুরুত্ত্বপূর্ন ৫টি রেজিষ্ঠার খাতা ওই অফিসের প্রসেস সার্ভার আজগার হোসেন’র অবহেলার কারনে হারিয়ে যায়। ২৫ জানুয়ারী উপজেলা সহকারী কমিশনার(ভূমি) এমএম আরাফাত হোসেন বাদী হয়ে অফিস সহকারী (নাজির) জিয়াউল ইসলাম, প্রসেস সার্ভার আজগার হোসেন ও স্থানীয় শিমুল কুমার দাস’র নাম উল্লেখ করে লোহাগড়া থানায় চুরির অভিযোগ এনে একটি সাধারণ ডায়েরী করেন। ৩১জানুয়ারী সকাল ১০টার দিকে লোহাগড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মনিরা পারভীন শিমুল কুমার দাসকে উপজেলা কার্যালয়ে ডেকে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায় উপস্থিত লোকজন তাকে ধরে বেধড়ক মারপিট করে গুরুত্বর আহত করে পুলিশের কাছে হস্থান্তর করেন। আহত শিমুল কুমার দাসকে পুলিশি পাহারায় লোহাগড়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার শারীরিক অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক নড়াইল সদর হাসপাতালে প্রেরন করেন। সেখানেও তার অবস্থার পরিবর্তন না হওয়ায় রোববার (৪ ফেব্রুয়ারী) খুলনা মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শিমুল কুমার দাস ওই হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে বলে জানিয়েছেন সাথে থাকা লোহাগড়া পৌর আওয়ামীলীগের ৮নং ওয়ার্ড সভাপতি বিবেকানন্দ দাস।

এ ঘটনায় উপজেলা ভূমি অফিসের সামনে পাকা রাস্তার ওপর থেকে রাত ৮টার দিকে ৫টি রেজিস্টার খাতা চুরি হয়েছে মর্মে অফিস সহকারী ইলিয়াস হোসেন বাদি হয়ে গত ৩১জানুয়ারী শিমুল কুমার দাসকে প্রধান আসামী করে লোহাগড়া থানায় একটি চুরির মিথ্যা মামলা দায়ের করেন। সরকারী অফিসের সময় সূচি সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত হলেও এজাহার মতে রেজিস্টার খাতা হারিয়েছে রাত ৮টার দিকে। স্থানীয়দের ধারনা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) এমএম আরাফাত হোসেন, ঢাকায় তিন দিনের প্রশিক্ষনে অবস্থান করার কারনে কোন অসৎ উদ্দেশ্যে ওই রাতে রেজিস্টার গুলি অফিস সহকারী ইলিয়াস হোসেন,প্রসেস সার্ভার আজগার হোসেন’র মাধ্যমে অফিসের বাহিরে পাঠিয়েছেন। বিষয়টি নিরপেক্ষ তদন্ত করলে বেরিয়ে আসবে বলে মনে করেন তারা।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) এমএম আরাফাত হোসেন রেজিস্টার খাতা উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

Print Friendly, PDF & Email
basic-bank

Be the first to comment on "লোহাগড়ায় ভূমি অফিসের রেজিষ্টার খাতা উদ্ধার"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*