সৌদি শাসকরা আল্লাহর পথে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে : খামেনি

নিউজ ডেস্ক : সৌদি আরবের হজ ব্যবস্থাপনার সমালোচনা করেছেন ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনি।

তিনি বলেছেন, “রিয়াদের দমনমূলক আচরণের কারণে মুসলিম বিশ্বের হজ ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব গ্রহণের বিষয়টি এখন বিবেচনার সময় এসেছে।”

গত বছর হজের সময় পদদলনে শতাধিক হজযাত্রী নিহত হওয়ার পর থেকেই সৌদি আরবের হজ ব্যবস্থাপনার সমালোচনা করে আসছে ইরান।

সোমবার এক বিবৃতিতে খামেনি বলেন, “সৌদি শাসকরা, যারা আল্লাহর পথে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে এবং ইরানের গর্বিত ও বিশ্বস্ত হজযাত্রীদের প্রিয় কাবাঘর পরিদর্শনের পথ রুদ্ধ করেছে, তারা মানুষকে অপদস্থ ও বিপথগামী করছে।”

“সৌদি শাসকেরা মুসলিম বিশ্বের প্রতি যে অন্যায় করেছে তার দায়িত্ব গ্রহণ থেকে অবশ্যই জনগণ (মুসলিম বিশ্বের) তাদের পালিয়ে যেতে দেবে না।”

এ বছর ১১ সেপ্টেম্বর হজ পালন হবে। যদিও ইরানের নাগরিকরা এবারের হজ পালন থেকে বিরত আছেন।

মে মাসে সৌদি আরব ও ইরানের কর্মকর্তরা হজ সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে বিরোধের সমাধানে আসতে ব্যর্থ হয়।

ইরানের দাবি, সৌদি কর্তৃপক্ষ ইরানের হজযাত্রীদের ‘যথাযথ নিরাপত্তা ও সম্মান প্রদাণে ব্যর্থ’ হয়েছে।

অন্যদিকে, সৌদি কর্তৃপক্ষ বলছে, হজ সংক্রান্ত বিষয়ে ইরানের দাবি ‘অগ্রহণযোগ্য’।

গত বছর হজ পালনে দেশটির প্রায় ৬০ হাজার নাগরিক সৌদি আরব গিয়েছিল। তাদের মধ্যে প্রায় চারশ’জন পদদলনে নিহত হয়। আর কোনও দেশের এত নাগরিক নিহত হননি।

আঞ্চলিক আধিপত্য বিস্তার নিয়ে ইরান ও সৌদি আরবের বিরোধ দীর্ঘদিনের। গত বছর হজের ওই ঘটনায় যা আরও চরম আকার ধারণ করেছে।

এ বছর জানুয়ারিতে সৌদি আরব তাদের দেশের একজন প্রখ্যাত শিয়া মুসলিম নেতার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করলে তার প্ররিপ্রেক্ষিতে ঘটা নানা ঘটনায় দুই দেশ পরষ্পরের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করে।

Print Friendly, PDF & Email
basic-bank

Be the first to comment on "সৌদি শাসকরা আল্লাহর পথে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে : খামেনি"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*