হেঁটে হেঁটে নুহাশ পল্লী যাচ্ছে হিমু আর রুপার দল

নিউজ ডেস্ক : জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের মৃত্যু হয়েছিল ক্যান্সারে। তার ভক্তদের একটি দল ক্যান্সার সম্পর্কে সচেতনতা তৈরিতে আজ হেঁটে হেঁটে ঢাকার কার্জন হল এলাকা থেকে গাজীপুরের নুহাশ পল্লী যাচ্ছেন। কিছুক্ষণ আগে কথা হলো নজরুল ইসলাম নামে একজনের সাথে। তিনি বলছেন তারা ঢাকার বাড্ডা পর্যন্ত এসে পৌঁছেছেন। কার্জন হল থেকে রওনা হয়েছিলেন ১২ জন। বাড্ডা পর্যন্ত যাওয়ার পর একদল সেখানে থেমে গেছে। সাথে যোগ হয়েছে নতুন ক’জন। এভাবেই গাজীপুরে নুহাশ পল্লী পর্যন্ত যাচ্ছেন তারা। তবে সাতজন যাচ্ছেন পুরোটা পথ। গাছগাছালিতে ভরা নুহাশ পল্লী গড়েছিলেন হুমায়ূন আহমেদ নিজে।

২০১৩ সালে তার প্রথম মৃত্যুবার্ষিকীতে একদল ভক্ত সূচনা করেছিলেন হিমু পরিবহন নামে একটি সংগঠনের। হুমায়ূন আহমেদের জনপ্রিয় চরিত্র হিমু আর রুপা সম্পর্কে যেকোনো হুমায়ূন ভক্তই জানেন। এ সংগঠনে ধীরে ধীরে সমবেত হতে থাকে নিজেদের হিমু আর রুপা ভাবেন এমন কিছু তরুণ-তরুণী। তিন বছরে হিমু পরিবহনের সদস্য সংখ্যা দেশজুড়ে ১০ হাজারের বেশি হয়েছে বলে জানিয়েছেন উদ্যোক্তারা। তারা সবাই মিলে ৪৫টি জেলায় হুমায়ূন আহমেদের জন্মদিন পালন করছেন বলে জানিয়েছেন।

হিমু পরিবহনের সমন্বয়ক আহসান হাবীব মুরাদ বলছেন, স্যার ক্যান্সারে মারা গেছেন। তাই আমরা শুধু হেঁটে হেঁটে যাব না সে নিয়ে মানুষজনের সাথে কথাও বলব। সেই সাথে যাত্রাপথে ক্যান্সার সচেতনতামূলক লিফলেট বিলি করব। হিমু চরিত্রটি হলুদ রংয়ের পাঞ্জাবি পরতে পছন্দ করত আর রাস্তায় ঘুরে বেড়াত। তার প্রতি আর লেখকের প্রতি ভালোবাসা থেকেই এমন সংগঠনের উদ্যোগ বলছিলেন তিনি। আবার তিনি নিজেই বলছেন, বিষয়টি পাগলামোও হতে পারে।

Print Friendly, PDF & Email
basic-bank

Be the first to comment on "হেঁটে হেঁটে নুহাশ পল্লী যাচ্ছে হিমু আর রুপার দল"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*