কারারক্ষীর প্রাণ বাঁচালেন কয়েদিরা

নিউজ ডেস্ক : কেউ খুনের দায়ে জেল খাটছেন, কেউ চুরির অপরাধে, তো কেউ ডাকাতির জন্য। সুযোগ পেলেই যারা কারারক্ষীকে মেরে পালিয়ে যাওয়ার চিন্তা করেন, সেই কয়েদিরা কিনা মরতে বসা এক কারারক্ষীর জীবন বাঁচাতে এগিয়ে গেলেন। এক সময় হাতে বন্দুক বা ছুরি ধরা মানুষগুলোর মানবিক মুখ দেখল গোটা বিশ্ব। যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের উইথফোর্ডের একটি জেলের ভিতরে থাকা কয়েদিদের মানবিকতাকে তাই প্রশংসা না করে পারলেন না জেল কর্মকর্তারা।

গত ২৩ জুনের ঘটনা। ওই জেলের একটি সেলে ৮ জন কয়েদি ছিলেন। প্রত্যেকের হাতেই হতাকড়া পরানো। সেলের ভিতর তারা নিজেদের মধ্যে গল্পে মশগুল ছিলেন। সেলের বাইরে এক পুলিশকর্মী পাহারায় ছিলেন। হঠাৎ তার হার্ট অ্যাটাক হয়। ওই পুলিশকর্মী চেয়ার থেকে মাটিতে পড়ে যান। এই দৃশ্য চোখে পড়তেই ওই আট কয়েদিদের সন্দেহ হয় কিছু একটা ঘটেছে। তারা সেলের মধ্য থেকেই সাহায্যের জন্য চিৎকার করতে থাকেন। কিন্তু কোন সাড়া না পেয়ে সেলের দরজার তালা ভেঙে বাইরে এসে ওই পুলিশকর্মীকে ওঠানোর চেষ্টা করেন। পাশাপাশি, সাহায্যের জন্য অন্য কারারক্ষীদের ডাকাডাকি করতে থাকেন। ভিতরে হই চই শুনে কয়েক জন কারারক্ষী ছুটে আসেন। প্রথমে কয়েদিদের সেলের ভিতরে ঢোকান। তারপর ওই রক্ষীকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠান। গোটা ঘটনাটা মাত্র ১৫ মিনিটের মধ্যে ঘটে। চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, আর একটু দেরি হলে হয়তো ওই কারারক্ষীর মৃত্যু হতে পারত।

কয়েদিদের এক জন নিক কেল্টন বলেন, “ওই কারারক্ষীকে পড়ে যেতে দেখে কখনোই মনে হয়নি সাহায্য করব না। তার কাছে বন্দুক ছিল, তবুও ঝুঁকি নিয়ে সাহায্য করতে এগিয়ে গেছি।”

এই জেলেই বেশ কয়েকটি ভয়ঙ্কর স্মৃতির কথাও মনে করিয়েছেন সার্জেন্ট রায়ান স্পিগেল। এই জেলেই কারারক্ষীদের মেরে জেল ভেঙে পালানোর মতো ঘটনাও বহু বার ঘটেছে। কিন্তু, কয়েদিদের এই দৃশ্য বিরল। পুরো ঘটনাটি জেলের ভিতরের সিসিটিভি ফুটেজে ধরা পড়েছে।

 

Print Friendly, PDF & Email
basic-bank

Be the first to comment on "কারারক্ষীর প্রাণ বাঁচালেন কয়েদিরা"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*