জামিন পেয়েছেন টাম্পাকোর মালিক

নিউজ ডেস্ক : গাজীপুরের টঙ্গীতে টাম্পাকো ফয়েলস লিমিটেড কারখানায় বিস্ফোরণ ও অগ্নিকাণ্ডে হতাহতের ঘটনায় করা দুই মামলায় আত্মসমর্পণ করে অস্থায়ী জামিন পেয়েছেন কারখানার মালিক সৈয়দ মকবুল হোসেন। তবে তাঁর ছেলেসহ পাঁচ আসামিকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। কারাগারে যাদের পাঠানো হয়েছে তাঁরা হলেন সৈয়দ মকবুল হোসেনের ছেলে ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ তানভীর আহমেদ, উপব্যবস্থাপনা পরিচালক সফি সামি ওরফে আলমগীর হোসেন, মহাব্যবস্থাপক সফিকুর রহমান, প্রশাসনিক কর্মকর্তা মনির হোসেন ওরফে মনিরুজ্জামান ও ব্যবস্থাপক হানিফ ওরফে আবু হানিফ।

ওই ঘটনায় টঙ্গী থানায় করা দুটি মামলায় উচ্চ আদালতের নির্দেশে ছয় আসামি আজ বুধবার গাজীপুর আদালতে আত্মসমর্পণ করেন। শুনানি শেষে বিচারক ওই আদেশ দেন।

গত ১০ সেপ্টেম্বর সকালে অগ্নিকাণ্ডের পর এক ভয়াবহ বিস্ফোরণে টাম্পাকো ফয়েলস কারখানাটি ধসে পড়ে। এ ঘটনায় ৩৯ জন নিহত ও কমপক্ষে ৪০ জন আহত হন। এ ঘটনায় ১২ সেপ্টেম্বর কারখানার মালিকসহ আটজনের বিরুদ্ধে টঙ্গী থানায় মামলা করেন নিহত শ্রমিক জুয়েলের বাবা আবদুল কাদের। পরে ১৭ সেপ্টেম্বর রাতে একই থানায় এসআই অজয় কুমার বাদী হয়ে কারখানার মালিকসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে অপর মামলাটি করেন।

গাজীপুর আদালতের পরিদর্শক মো. রবিউল ইসলাম জানান, উচ্চ আদালতের নির্দেশে আসামিরা দুপুরে গাজীপুরের জেলা ও দায়রা জজ এ কে এম এনামুল হকের আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন প্রার্থনা করেন। শুনানি শেষে আদালত আগামী ৪ জানুয়ারি পর্যন্ত কারখানার মালিক সৈয়দ মকবুল হোসেনের অস্থায়ী জামিন মঞ্জুর করেন। বাকিদের কারাগারে পাঠান।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সুমন ভক্ত জানান, ইতিপূর্বে টাম্পাকোর মামলায় উচ্চ আদালতে জামিন আবেদন করলে মকবুল হোসেনের স্ত্রী সাজেদা পারভীন হোসেন ও তাঁর মেয়ে সৈয়দা আবিদা হোসেনকে আট সপ্তাহের জন্য জামিন দেন এবং অন্যদের এক মাসের মধ্যে নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেন। সে অনুযায়ী আসামিরা আজ আত্মসমর্পণ করে জামিন প্রার্থনা করেছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email
basic-bank

Be the first to comment on "জামিন পেয়েছেন টাম্পাকোর মালিক"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*