সাংবাদিক হত্যা মামলায় ৯ জনের যাবজ্জীবন

নিউজ ডেস্ক : খুলনার সাংবাদিক মানিক চন্দ্র সাহা হত্যা মামলার ১১ আসামির মধ্যে ৯ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে তাদের প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছর করে কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়েছে। মামলার বাকি দুই আসামিকে দেওয়া হয়েছে খালাস। এই হত্যাকাণ্ডে দায়ের করা বিস্ফোরক মামলার রায়ও ঘোষণা করা হয়েছে। এতে আসামিদের খালাস দেওয়া হয়েছে। হত্যাকাণ্ডের দীর্ঘ এক যুগ পর বুধবার (৩০ নভেম্বর) খুলনা বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক এম এ রব হাওলাদার এ আদেশ দেন। রায় ঘোষণার সময় পাঁচ আসামি আদালতের এজলাসে ছিলেন।

২০০৪ সালের ১৫ জানুয়ারি খুলনা প্রেস ক্লাবের অদূরে ছোট মির্জাপুরে প্রবেশ মুখের রাস্তায় দুষ্কৃতকারীদের বোমা হামলায় ঘটনাস্থলে নিহত হন মানিক চন্দ্র সাহা। তিনি খুলনা প্রেসক্লাব ও সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি, দৈনিক সংবাদ ও একুশে টেলিভিশনের খুলনা ব্যুরো প্রধান, বিবিসি বাংলা বিভাগের কন্ট্রিবিউটর ছিলেন। এছাড়া মরণোত্তর একুশে পদক পান তিনি।

ঘটনার দুই দিন পর ১৭ জানুয়ারি খুলনা সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রনজিৎ কুমার দাস বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা খুলনা সদর থানার তৎকালীন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোশাররফ হোসেন হত্যা মামলার চার্জশিট দাখিল করেন। একই বছরের ১৯ মার্চ অপর তদন্তকারী কর্মকর্তা খুলনা সদর থানার এসআই আসাদুজ্জামান ফরাজী বিস্ফোরক অংশের চার্জশিট আদালতে দাখিল করেন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, সাক্ষীরা যথাসময়ে সাক্ষ্য না দেওয়ায় মামলা দুটি অনেকটা গতি হারিয়ে ফেলছিলো। ২১ নভেম্বর (সোমবার) খুলনা বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক এম এ রব হাওলাদারের আদালতে সাক্ষ্য দেন সর্বশেষ সাক্ষী সাংবাদিক মানিক সাহা হত্যা মামলার সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণকারী তৎকালীন খুলনার ম্যাজিস্ট্রেট (বর্তমানে উপ-সচিব হিসেবে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে কর্মরত) মো. দেওয়ান আব্দুস সামাদ। গত এক সপ্তাহ ধরে রাষ্ট্রপক্ষ ও আসামিপক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ হবার পর সোমবার (২৮ নভেম্বর) খুলনা বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক এম এ রব হাওলাদার হত্যা ও বিস্ফোরক মামলার রায়ের দিন নির্ধারণ করেন।

Print Friendly, PDF & Email
basic-bank

Be the first to comment on "সাংবাদিক হত্যা মামলায় ৯ জনের যাবজ্জীবন"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*