গোলাপি বলকে ‘না’ বললেন শচীন

নিউজ ডেস্ক : টেস্ট ক্রিকেটকে ‘বাঁচাতে’ গোলাপি বলের ব্যবহারকে সঠিক পথ হিসেবে দেখছেন না ভারতীয় ক্রিকেট ঈশ্বর শচীন টেন্ডুলকার। টেস্ট ম্যাচে জনপ্রিয়তা বাড়াতে কী প্রয়োজন- ডে-নাইট ফরমেট, গোলাপি বল, ভালো উইকেট? কানপুরে টিম ইন্ডিয়ার ৫০০তম টেস্ট (নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে) শুরুর আগে এ বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেন ভারতের সাবেক ও বর্তমান ক্রিকেট গ্রেটরা।

নিজের প্রতিক্রিয়ায় টেন্ডুলকার বলেন, ‘ব্যক্তিগতভাবে আমি গোলাপি বলে খেলার ধারণাটা পছন্দ করি না। অনেক কিছুই সমন্বয় করা হয়েছে এবং আমার অনুভূতি গোলাপি বল ভালো আইডিয়া নয়।’

‘সন্ধ্যাকালীন সময়ে উইকেটে ডিউ ফ্যাক্টর (শিশির) কেমন আচরণ করবে তা আমি নিশ্চিত নয়। বিশ্বের বিভিন্ন পিচের আচরণ এক রকম হবে না। সম্ভবত, একটি ভালো উপায় হচ্ছে, উইকেটে বোলারদের সমানভাবে সুবিধা দেওয়া।-যোগ করেন টেন্ডুলকার।

ভারতের ঐতিহাসিক টেস্ট উপলক্ষ্যে শচীন ছাড়াও তারকাসমৃদ্ধ প্যানেলে আরও উপস্থিত ছিলেন সাবেক অধিনায়ক কপিল দেব, দিলিপ ভেংসরকার, কৃষ্ণমাচারি শ্রীকান্ত, রবি শাস্ত্রী ও সৌরভ গাঙ্গুলি। বর্তমান অধিনায়ক বিরাট কোহলিও সেখানে অংশ নেন। শ্রোতা হিসেবে উপস্থিত হন সুনীল গাভাস্কার ও মোহাম্মদ আজহারউদ্দিন।

টেন্ডুলকারের যুক্তির সঙ্গে সহমত পোষণ করে শাস্ত্রী বলেন, ‘শচীন যা যা বলেছে তার সঙ্গে আমি একমত। শিশির একটি বড় ফ্যাক্টর। ব্যাটিং ও বোলিংয়ের মধ্যে ভারসাম্য রাখতে হবে।’

আইসিসির সিইও ডেভিড রিচার্ডসনের অনুভূতি, ‘ভালো উইকেট, ভালো মার্কেটিং, প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক ক্রিকেট এ সব কিছুই করা প্রয়োজন।’

কোহলির ভাষ্য, ‘টেস্ট এখনো ক্রিকেটের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ফরমেট। টেস্ট ক্রিকেট যেখানে আছে তাই আমরা ধরে রাখবো। এটি এগিয়ে নিতে আমরা যথাসাধ্য চেষ্টা করবো।’

গত বছরের নভেম্বরে অ্যাডিলেড ওভালে ইতিহাসে প্রথমবারের মতো গোলাপি বলে দিবারাত্রির টেস্ট খেলেছিল অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড। আগামী মাসে দুবাইয়ে অনুষ্ঠেয় (১৩-১৭ অক্টোবর) পাকিস্তান-ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রথম টেস্টটি ফ্লাডলাইটের আলোয় অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
basic-bank

Be the first to comment on "গোলাপি বলকে ‘না’ বললেন শচীন"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*