যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন বিমানবন্দরে বিক্ষোভ

নিউজ ডেস্ক : শরণার্থী ও অভিবাসী নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের দেওয়া নির্বাহী আদেশ বাস্তবায়ন শুরুর পর থেকে যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন বিমানবন্দরে বিক্ষোভ শুরু হয়েছে।
শুক্রবার ট্রাম্পের আদেশের পর শনিবার মিসরের একটি বিমানবন্দরে বৈধ ভিসা থাকার পরও ইরাকের পাঁচজন ও ইয়েমেনের একজনকে যুক্তরাষ্ট্রগামী বিমানে উঠতে দেয়া হয়নি; নেদার‌ল্যান্ডস এর একটি বিমান থেকে ৭ জনকে নামিয়ে দেওয়া হয়; নিউ ইয়র্কের জন এফ কেনেডি বিমানবন্দর থেকে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের সময় গ্রিন কার্ডধারী ১২জনকে আটক করে পুলিশ।
এরপরই যুক্তরাষ্ট্রের বিমানবন্দরগুলোতে বিক্ষোভকারীদের ঢল নামে। তারা ট্রাম্পের আদেশ প্রত্যাহারের আবেদন জানানোর পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্রে অভিবাসী ও শরণার্থীদের মর্যাদা বাড়ানোরও দাবি জানান।
শনিবার দুপুরে নিউ ইয়র্কের জেএফকে বিমানবন্দরের কয়েকশ’ বিক্ষোভকারীকে ‘লেট দেম ইন’, ‘ব্যান-ডেথ, উই আর আমেরিকান-উই স্টে হিয়ার’ সহ নানা ধরণের স্লোগান দিতে দেখা গেছে।
লস অ্যাঞ্জেলস, সানফ্রান্সিসকো, শিকাগোর ও’হেয়ার, ওয়াশিংটন ডিসির ডালাসসহ ডজনখানেক এয়ারপোর্টে ট্রাম্পের আদেশের বিরুদ্ধে হাজারও নাগরিক বিক্ষোভ করছে বলে স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে।
আটকদের ছাড়াতে তাদের আইনজীবীরাও বিমানবন্দরগুলোতে তৎপর রয়েছেন।
ট্রাম্পের ওই আদেশে আগামী চার মাস যুক্তরাষ্ট্রে শরণার্থীদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে। যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়ার শরণার্থীদের জন্য অনির্দিষ্টকালের নিষেধাজ্ঞা আরোপের পাশাপাশি ইরাক, ইরান, লিবিয়া, সোমালিয়া, সুদান ও ইয়েমেন থেকে আগতদের উপর তিন মাসের কড়াকড়িও আরোপ করা হয় ওই আদেশে।
এই আদেশের ফলে ওইসব দেশের গ্রিন কার্ডধারীরা নাগরিকরাও নিষেধাজ্ঞার আওতায় থাকছেন বলে যুক্তরাষ্ট্রের হোমল্যান্ড সিকিউরিটি ডিপার্টমেন্টের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।
বিমানবন্দরগুলোতে বিক্ষোভকারীরা ট্রাম্পের এই আদেশ প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে বলছেন, প্রেসিডেন্টের আরোপিত নিষেধাজ্ঞা যুক্তরাষ্ট্রের মূল্যবোধের সঙ্গে যায় না।

Print Friendly, PDF & Email
basic-bank

Be the first to comment on "যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন বিমানবন্দরে বিক্ষোভ"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*