যুক্তরাষ্ট্রের ১০ অঙ্গরাজ্যে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি

 

নিউজ ডেস্ক : সাত মুসলিম দেশ থেকে অভিবাসী-শরণার্থীদের নিষিদ্ধ করে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড  ট্রাম্পের নির্বাহী আদেশ ও বিমানবন্দরে মুসলিম যাত্রীদের হয়রানি ও নাজেহালের  বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের ১০টি অঙ্গরাজ্যে মামলা করার প্রস্তুতি চলছে। এরই মধ্যে তিন  অঙ্গরাজ্যের অ্যাটর্নি জেনারেলরা মামলার প্রক্রিয়া নিয়ে আলোচনা সম্পন্ন করেছেন।

একই ইস্যুতে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছে দেশটির একটি নাগরিক সুরক্ষা কমিটি।

আমেরিকান সিভিল লিবার্টিস ইউনিয়ন (এসিএলইউ) নামের ওই কমিটির পক্ষ থেকে  মামলা করা হয়েছে। এ ছাড়া কাউন্সিল অন আমেরিকান ইসলামিক রিলেশনের (সিএআইআর) পক্ষ থেকেও মামলার হুমকি দেওয়া হয়েছে। ওয়াশিংটন, ভার্জিনিয়া, ক্যালিফোর্নিয়া, টেক্সাস, ম্যাসাচুসেটস, নিউ ইয়র্ক, নিউ জার্সি, ফ্লোরিডা, পেনসিলভানিয়া, ওয়াশিংটন এবং হাওয়াই অঙ্গরাজ্যে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্বাহী আদেশ ও বিমানবন্দরে মুসলিম যাত্রীদের হয়রানী ও নাজেহালের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে। ইতিমধ্যে পেনসিলভানিয়া, ওয়াশিংটন এবং হাওয়াই অঙ্গরাজ্যের অ্যাটর্নি জেনারেল অফিসের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, গত শনিবার তাঁরা কীভাবে ও কোন আদালতে ট্রাম্পের অভিবাসনবিরোধী নির্বাহী আদেশের বিরুদ্ধে মামলা করা যায়- তা নিয়ে আলোচনা করেছেন।

হাওয়াই অঙ্গরাজ্যের অ্যাটর্নি জেনারেল ডগলাস চিন বলেন, ”আমরা বিশ্বাস করি নির্বাহী আদেশ অসাংবিধানিক। তবে তিনি এ বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানাতে অস্বীকার  করেন। মূলত ডেমোক্রেটিক পার্টি ক্ষমতায় এমন রাজ্যগুলোই ট্রাম্পের বিরুদ্ধে একাট্টা হওয়ার চেষ্টা করছে। ” তবে শেষ পর্যন্ত কতগুলো রাজ্য তাতে যোগ দেবে- তা বলতে পারেননি ওই অ্যাটর্নি জেনারেলরা। পেনসিলভানিয়া অ্যাটর্নি জেনারেল জোস শাপিরোর মুখপাত্র জো গ্রেস বলেন, ”এ নিয়ে নিশ্চিতভাবেই একটি আলোচনা চলছে। ”

গত শুক্রবার সাত মুসলিম অধ্যুষিত দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে সাময়িক নিষেধাজ্ঞা দিয়ে নির্বাহী আদেশ জারি করেন যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। দেশগুলো হচ্ছে, ইরাক, ইরান, সিরিয়া, ইয়েমেন, সুদান, লিবিয়া এবং সোমালিয়া। ওই আদেশের ফলে আগামী চার মাস আর কোনো শরণার্থী যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের সুযোগ পাবে না। সিরীয় শরণার্থীদের ক্ষেত্রে এই নিষেধাজ্ঞা কার্যকর থাকবে পরবর্তী আদেশ না দেওয়া পর্যন্ত। যা ট্রাম্পের ভাষায় ’একস্ট্রিম ভেটিং মেজার্স’।

এ ঘটনার পর প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের নির্বাহী আদেশের বিরুদ্ধে একটি মামলা করেছে আমেরিকান সিভিল লিবার্টিস ইউনিয়ন বা এসিএলইউ। তাদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে স্থানীয় সময় গত শনিবার ট্রাম্পের  নির্বাহী আদেশ সাময়িকভাবে স্থগিতের আদেশ দেন নিউ ইয়র্কের ব্রুকলিন ফেডারেল জেলা জজ আদালতের বিচারক অ্যান ডানলি। তবে আদালত ট্রাম্পের নির্বাহী আদেশের সাংবিধানিকতা নিয়ে কিছু বলেননি। আগামী মাসের শেষ দিকে এই স্থগিতাদেশ বিষয়ে পরবর্তী শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

 

Print Friendly, PDF & Email
basic-bank

Be the first to comment on "যুক্তরাষ্ট্রের ১০ অঙ্গরাজ্যে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*